পত্রিকার পাতা মেলে ধরলে একটি বিশেষ খবর প্রায় নিয়মিতই চোখে পড়ে, তা হলো ধর্ষণের খবর। আর এই ধর্ষণ শুধু বাংলাদেশেই নয়, গোটা বিশ্বেরই ভয়াবহ মাত্রায় বেড়ে চলেছে। দ্য ন্যাশনাল সেক্সুয়াল ভায়োলেন্স রিসোর্স সেন্টারের এক হিসাব অনুযায়ী, প্রতি পাঁচজন নারীর মধ্যে একজন জীবনের যেকোনো পর্যায়ে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হয়।

শিউরে উঠবার মতো একটি পরিসংখ্যানই বটে। যে হারে মানুষের মনুষ্যত্ব ও মূল্যবোধ লোপ পাচ্ছে, তাতে অদূর ভবিষ্যতে ধর্ষণের অনুপাত আরো বেড়ে গেলেও অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না। আর যে সমাজে নারী-পুরুষের সমানাধিকারই প্রতিষ্ঠিত হয় না, নারীদেরকে বাড়ির বাইরে পা রাখতে হয় সহিংসতা বা হয়রানির আশঙ্কা মাথায় নিয়ে, সেখানে প্রযুক্তিগত উৎকর্ষতা কীই বা এমন পার্থক্য গড়ে তুলতে পারে।

তবে আশার কথা হলো, নারীদেরকে ধর্ষণ বা যৌন হয়রানি থেকে রক্ষা করতে প্রযুক্তিরও কিছু অবদান রয়েছে। প্রযুক্তি হয়তো বিকৃতমনস্ক পুরুষদের মানসিকতায় রাতারাতি পরিবর্তন আনতে পারে না, কিন্তু নারীদের ব্যক্তিগত নিরাপত্তা ও সুরক্ষা নিশ্চিতে বেশ ভালো ভূমিকাই পালন করতে পারে। চলুন পাঠক, জেনে নিই আধুনিক প্রযুক্তি কীভাবে নারীদেরকে যৌন হয়রানির হাত থেকে রক্ষায় অবদান রাখছে

এথেনা

এটি একটি কয়েন আকৃতির কালো রঙের সিলিকনের পেন্ডেন্ট, যা নারীরা তাদের পার্স, কাপড় ইত্যাদির সাথে লাগিয়ে রাখতে পারেন, কিংবা নেকলেস হিসেবে গলায়ও ঝুলাতে পারেন। এর ঠিক মাঝখানে একটি বোতাম থাকে।

কোনো বিপদে পড়লে বা কারো দ্বারা আক্রমণের শিকার হলে, পরিধানকারী নারী স্রেফ তিন সেকেন্ড বোতামটি চেপে ধরলেই তার বন্ধুবান্ধব বা পরিবারের সদস্যদের কাছে অ্যালার্মসহ একটি নটিফিকেশন চলে যাবে, এবং তার বর্তমান অবস্থানও তাদেরকে জানিয়ে দেয়া হবে।

সেফলেট

এটি দেখতে ব্রেসলেটের মতো, যার মাধ্যমে পূর্ব-নির্ধারিত বন্ধু বা পরিবারের সদস্যদের কাছে সতর্কবার্তা পৌঁছে দেয়া সম্ভব, এবং সে অনুযায়ী পরবর্তীতে তারা পুলিশে খবর দিতে পারবে। সাধারণ ব্রেসলেটের মতো এটি হাতেই পরতে হয়।

কোনো কারণে পরিধানকারী বিপদে পড়লে, তাকে দুইবার ব্রেসলেটের দুইটি বোতাম চাপতে হবে, আর সাথে সাথে এটি সক্রিয় হয়ে যাবে। চালু অবস্থায় এটি ব্যবহারকারীর মোবাইল ফোনের সাথে সিঙ্ক করবে এবং আওয়াজ রেকর্ড করতে শুরু করবে।

ওয়াচ ওভার মি; Image Source: Heavy.com

ওয়াচ ওভার মি

এটি অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএসের জন্য একটি ফ্রি অ্যাপ্লিকেশন, যার মাধ্যমে ব্যবহারকারী একলা পথ চলার সময় টাইমার চালু করে রাখতে পারবেন। যদি হঠাৎ করে তিনি বিপদে পড়েন এবং কাউকে ফোন দেয়ার সময় না থাকে, তাহলে সাহায্যের জন্য তাকে শুধু মোবাইলটি ধরে ঝাঁকাতে হবে।

এমনকি মোবাইল লক অবস্থায় থাকলেও অ্যাপটি কাজ করা শুরু করে দেবে। প্রথমে এটি অ্যালার্ম বাজাতে শুরু করবে যাতে আশেপাশে কেউ থাকলে সে টের পায়। এছাড়া ভিডিও ক্যামেরা চালু হয়ে হামলাকারীর ভিডিও ধারণ করতে থাকবে, এবং পূর্ব-নির্ধারিত এমার্জেন্সি কনট্যাক্টসে সতর্কবার্তা পাঠাতে থাকবে।

এছাড়া এই অ্যাপটির আরেকটি সুবিধা হলো, নির্দিষ্ট কিছু শহরের ব্যবহারকারীরা যদি কোনো অপরাধপ্রবণ এলাকায় প্রবেশ করেন, তখনও তাদেরকে এটি আগাম সতর্ক করে দেয়।

স্টিলেটো; Image Source: Stiletto

স্টিলেটো

অন্যান্য পরিধানযোগ্য ডিভাইস বা অলঙ্কারের সাথে এটির পার্থক্য হলো, এটি সরাসরি ৯১১ নম্বরে কল দিয়ে দেয়। দৈর্ঘ্য ও প্রস্থে এক ইঞ্চিরও কম এই ডিভাইসটিকে নেকলেস বা ব্রেসলেট হিসেবে পরা যায়, এবং কেবল একবার চাপ দলেই এটি এমার্জেন্সি কনট্যাক্ট বা পুলিশের কাছে কল দিয়ে দেয়।

যদি ব্যবহারকারী কোনোভাবে কথা বলতে না পারেন, তার হয়ে অটোমেটেড ভয়েস অ্যাসিস্ট্যান্টই কাজটি করে দেয়। আবার পরিস্থিতি যদি স্বাভাবিক হয়ে যায় বা ভয়ের কোনো কারণ না থাকে, দ্বিতীয় আরেকবার চাপ দিলেই এটি ব্যবহারকারীর পরিচিতদের বা পুলিশের কাছে তার নিরাপদ থাকার নতুন আরেকটি বার্তা পাঠিয়ে দেয়।

আন্ডারকভার কালার্স;Image Source: YouTube

আন্ডারকভার কালার্স

বিদেশে ডেটিংয়ে গিয়ে প্রেমিকাকে ধর্ষণের জন্য প্রধানত জানাক্স, রোহিপনল বা জিএইচবি ড্রাগ ব্যবহার করা হয়। আর তাই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা এমন এক ধরনের নেইল পলিশ তৈরি করেছেন, যা এই ড্রাগগুলোর সংস্পর্শে এলেই বর্ণ পরিবর্তন করবে। তাই এখন এই নেইল পলিশ ব্যবহারকারী নারীদেরকে চাইলেই কোনো প্রেমিক বেশধারী ধর্ষক ফাঁদে ফেলতে পারবে না।

রিভোলার

এটি মূলত একটি পরিধানযোগ্য ডিভাইস যা চাবির গোছা বা প্যান্টের পকেটের সাথে আটকে রাখতে হয়। তবে এটির একটি বিনামূল্য অ্যাপ সংস্করণও রয়েছে। এটি ওয়াইফাই বা সেলুলার ডাটা দুইভাবেই চলে। ভ্রমণের সময় এটিতে একবার চাপ দিয়ে কাছের মানুষদের জানিয়ে দেয়া যায় যে আপনি নিরাপদে আছেন, দুইবার চাপ দিয়ে যে আপনি অনিরাপদ বোধ করছেন, আর তিনবার চাপ দিয়ে যে আপনার বিপদ আসন্ন।

এছাড়া অ্যাপ সংস্করণটি দিয়ে ফোনকলও দেয়া সম্ভব। এর মাধ্যমে স্বয়ংক্রিয়ভাবেই পূর্ব-নির্ধারিত নম্বরে কল চলে যাবে, এবং কল রিসিভ হলে একটি প্রি-রেকর্ডেড বার্তা শোনাব্দ।

রিয়্যাক্ট মোবাইল

রিয়্যাক্ট মোবাইলের দুইটি সংস্করণ রয়েছে – একটি বিনামূল্যের নিরাপত্তা অ্যাপ, আরেকটি প্যানিক বাটন ডিভাইস যা হাতে বহন করা যায় কিংবা কাপড়, গাড়ির চাবি, ওয়ালেট প্রভৃতির সাথে আটকে রাখা যায়। চালু করামাত্রই এটি ব্যবহারকারীর সকল তথ্য ও জিপিএস লোকেসঝন এমার্জেন্সি কনট্যাক্টে পাঠিয়ে দেয়।

গো গার্ডেড; Image Source: Go Guarded

গো গার্ডেড

এই আত্মরক্ষার পণ্যটি তৈরি করা হয়েছে স্বাস্থ্য সচেতন নারীদের কথা চিন্তা করে, যারা খুব ভোরে কিংবা সন্ধ্যায় সব কাজের শেষে নির্ভয়ে বাইরে গিয়ে শরীরচর্চা করতে চান। এটি মূলত প্লাস্টিকের তৈরি ধারালো একটি অস্ত্র যা সহজেই আঙ্গুলে পরে রাখা যায়।

তাই কোনো পুরুষ যদি আক্রমণ করে, তাহলে আপনার কোনো বোতাম চাপা বা পকেটে হাত দেয়ার প্রয়োজন পড়বে না। নিজ হাতেই ঘায়েল করতে পারবেন আক্রমণকারীকে।